ওষুধের দোকানে গণধর্ষণের শিকার মহিলা

0
38

নয়াদিল্লি: ওষুধ আনতে গিয়ে ডাক্তারের ক্লিনিকে গণধর্ষণের শিকার হলে এক মহিলা৷ অভিযোগ, মহিলাকে ছুরি দিয়ে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে৷ দিল্লির কোতয়ালি থানা এলাকার এক গ্রামের ঘটনা৷ অন্যদিকে, অভিযোগ জানান তিনদিন বাদেও স্থানীয় থানার পুলিশ রিপোর্ট দায়ের করেনি৷ সেই কারণে মহিলা ও তার পরিবারএসএসপির দ্বারস্থ হয়েছেন৷ অন্যদিকে, পুলিশের তরফে মহিলার অভিযোগ মিথ্যা বলা হয়েছে৷
জানা গিয়েছে, চলতি মাসের গত চার তারিখ রাতে মহিলার স্বামী বাড়িতে ছিলেন না৷ মহিলার শাশুড়ির শরীর হঠাৎ খারাপ হওয়ায় সেদিন রাতে মহিলা একপ্রকার বাধ্য হয়েছিল ডাক্তারের ক্লিনিকে ওষুধ আনতে একাই যান৷ অভিযোগ, ডাক্তার মহিলার সঙ্গে আশালীন কথাবার্তা বলেন ও আরও দুই সঙ্গীকে সেখানে ডেকে নেন৷ মহিলার অভিযোগ, অভিযুক্ত একজন হাতুড়ে ডাক্তার৷ অভিযুক্ত চিকিৎসক ও তার দুই সঙ্গী মহিলাকে ছুড়ি দেখিয়ে প্রাণে মারার হুমকি দিয়ে তাকে ধর্ষণ করে৷ মহিলা ঘটনার প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করে তার কাপড় ছিঁড়ে দেওয়া হয়৷ এমনকি ঘটনার কথা কাউকে জানালে তাকে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়া হয়৷ মহিলা এরপর বাডিতে ফিরে পরিবারকে ঘটনার কথা জানান৷ এরপরেই ১০০ নম্বরকে ফোন করে পুলিশকে ঘটনার কথা জানান৷
মহিলার অভিযোগ, তদন্তের বদলে পুলিশের তরফে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ এরপরেই মহিলা এসএসপির কাছে দ্বারস্থ ন্যায়বিচার দাবি করেন৷
অন্যদিকে, থানার বড়বাবু অজয়কুমার সিং জানিয়েছেন, মহিলা নিজেই যুবকদের সঙ্গে খোশ গল্প করছিলেন৷ মহিলা ও যুবকদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়েছিল৷ তবে মহিলার ধর্ষণের অভিযোগ একেবারেই মিথ্যে৷

---