পাঠানকোটের পুনরাবৃত্তি হবে পানাগড়ে?

0
63

কলকাতা বিমানবন্দর উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি এসেছে। এর মধ্যে আবার পানগড় সেনা ছাউনির ভিতর থেকে আটক হল ১ ব্যক্তি। পুলিশ জানায়, সন্দেহভাজন এই ব্যক্তির নাম মেহমুদ আলম। তাকে সেনা ছাউনির ভিতরে ঘোরাঘুরি করতে দেখেই তাকে আটক করে জেরা শুরু করে বায়ুসেনা। এই ঘটনার পরই সেনা ছাউনির পাশে দুটি ট্যাঙ্কারে ভয়াবহ আগুন লাগে। এই দুটি ঘটনার পিছনে যোগসূত্র বা জঙ্গিযোগ রয়েছে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কাঁকসা থানার পুলিশ।

সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার দুপুরে পানাগড় বায়ুসেনা ঘাঁটিতে মেহমুদ আলম নামে সন্দেহজনক এক ব্যক্তিকে ঘোরাঘুরি করতে দেখা যায়। ওই ব্যক্তি সেনা ঘাঁটির ভিতরে রানওয়েতে ঘোরাঘুরি করছিল। দেখা মাত্রই ওই ব্যক্তিকে আটক করে বায়ুসেনা। সে কীভাবে, কেন সেনা ছাউনির ভিতর ঢুকল তা নিয়ে ওই ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে সেনাবাহিনী। নিরাপত্তার বেড়াজাল টপকে এই ব্যক্তি কীভাবে সেনা ঘাঁটির ভিতরে ঢুকল, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এই সমস্ত জবাব পাওয়ার আগেই আরও একটি ভয়াবহ ঘটনা ঘটল পানাগড় সেনাঘাঁটি সংলগ্ন এলাকায়। সেনাঘাঁটির পাশে দাঁড়িয়ে থাকা দুটি ট্যাঙ্কারে আগুন ধরে যায়। মুহূর্তের মধ্যে সেই আগুন একটি ট্রেলার এবং একটি বাইকে ছড়িয়ে পড়ে। গুরুতর আহত হন ২ জন। তারপর দমকলের চারটি ইঞ্জিনের দু’ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এই ঘটনায় জঙ্গি-যোগের সম্ভাবনা থাকতে পারে বলে সেনাবাহিনীর অনুমান। যদিও ট্যাঙ্কার ওয়েল্ডিং করার সময়ই আগুন লাগে বলে প্রাথমিক সূত্রের খবর। কিন্তু এই আগুনের সঙ্গে সেনা ছাউনির ভিতর আটক সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তির যোগ থাকার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। এটি অন্তর্ঘাতের কোনও ঘটনা কিনা, তা নিয়ে বায়ুসেনা ও কাঁকসা থানার পুলিশ তদন্ত শুরু হয়েছে।

-----
Previous articleমেসির জোড়া গোলে এইবারকে উড়িয়ে দিল বার্সা
Next articleTeesta Deal To Be Finalized Soon, Hints Bangladesh