কৈলাস মানস সরোবরে রহস্যময়ী আলো!

0
449

নয়াদিল্লি: মানস সরোবরে দেখা গেল রহস্যময়ী রশ্নি। দিনের বেলায় সেই রশ্নির আভাসে যেমন উজ্জ্বল হয়ে উঠছে মানস সরোবর। তেমনই রাতের অন্ধকারেও দীপের শিখার মত প্রজ্জ্বলিত হয়ে রয়েছে আলোর বিন্দু। কোথা থেকে কীভাবে এই আলো আসছে তার হদিশ নেই। তবে রহস্যময়ী এই আলোর গল্প যে নিছক গল্প নয়, তার প্রমাণ ইউটিউব।

দেখুন সেই চাঞ্চল্যকর ভিডিওটি

- Advertisement -

সারা বিশ্বের কাছে তীর্থস্থান হিসেবে প্রসিদ্ধ কৈলাস মানস সরোবর। ভূ-পৃষ্ঠ থেকে প্রায় সাড়ে ১৯ হাজার ফুট উঁচুতে অবস্থিত এটি। কথিত আছে, দেবাদিদেব মহাদেব তাঁর পরিবার নিয়ে মানস সরোবরের পার্শ্ববর্তী কৈলাস পর্বতে বাস করেন। আর কৈলাসের নীচে অবস্থিত মানস সরোবর ঝিল এবং রাক্ষস ঝিলে সূর্য এবং চন্দ্রের আকর্ষণ প্রদর্শিত হয় এবং এর সঙ্গে ইতিবাচক, নেতিবাচক মনোভাবও সম্পর্কযুক্ত। পৌরাণিক এই তথ্যের উপর ভর করে প্রতি বছর বহু মানুষ মানস সরোবরে আসেন। এই সরোবরে রহস্যময়ী রশ্নির কথা শোনা গেলেও আগে কখনও প্রমাণিত হয়নি। সম্প্রতি এক ভিডিওর মাধ্যমে এটি প্রমাণ করে দেখালেন শৈলেন্দ্র চিন্থা। এই রহস্যময়ী রশ্নি দেখে যে কেবল সাধারণ মানুষ নন, সেনা-জওয়ানরাও হতভম্ব তাও ভিডিওতে রয়েছে।

সম্প্রতি শৈলেন্দ্র চিন্থা কৈলাস মানস সরোবরের রহস্যময়ী আলোর ভিডিও ইউটিউবে ছাড়েন। বর্তমানে এটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ভাইরাল’ হয়ে গিয়েছে। মানস সরোবরে যে রহস্যময়ী আলোর শিখা রয়েছে, তা এই ভিডিওটি-ই প্রমাণ করে। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, রাতের অন্ধকারে মানস সরোবরের সামনে জড়ো হয়েছেন কিছু সাধারণ মানুষ এবং সেনা-জওয়ান। মানস সরোবরের দিকে তাকিয়ে তাঁরা দেখতে পাচ্ছেন, সরোবরের উপর একহাত দূরত্বে তিনটি আলোর বিন্দু দেখা যাচ্ছে। কোথা থেকে এই বিন্দুর মত আলো সরোবরের উপর পড়ছে তা বোঝা যাচ্ছে না। এগুলি চাঁদ বা নক্ষত্রের আলোর প্রতিবিম্বও নয়। কেননা আকাশে চাঁদ বা নক্ষত্র কিছুই নেই। চারপাশ ঘুটঘুটে অন্ধকার। তার মধ্যেই জ্বলছে তিনটি আলোর বিন্দু। কেবল রাত নয়, দিনের বেলাও যেন একটু বেশি উজ্জ্বল মানস সরোবর। এই সরোবরে যাঁরা পুণ্যস্নান করছেন, তাঁদের দেহ যেন কোনও বিশেষ আলোয় প্রতিভাত হচ্ছে। তাহলে এই আলোর পিছনে কী কোনও বিশেষ রহস্য রয়েছে? শৈলেন্দ্র চিন্থার ভিডিও দেখে এমন জল্পনাই শুরু হয়েছে।

---