মুজফরনগর দাঙ্গায় পুলিশকে দুষল কমিশন

0
41

লখনউ: মুজফরনগর দাঙ্গায় ক্লিন চিট পেল অখিলেশ যাদব পরিচালিত উত্তর প্রদেশ সরকার। স্থানীয় পুলিশ এবং প্রশাসনকে দায়ী করে রিপোর্ট পেশ করেছে বিচারপতি বিষ্ণু সহায়ের কমিশন। রিপোর্ট অনুযায়ী মুজফরনগরের প্রবীণ পুলিশ সুপার সুভাষ চন্দ্র দুবে এবং স্থানীয় পুলিশ অফিসার প্রবাল প্রতাপ সিংকে ওই ঘটনার জন্য প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিলেন। স্থানীয় পঞ্চায়েত এবং গোয়েন্দাদের ব্যর্থতার জন্যেই দাঙ্গা ব্যাপক আকার নিয়েছিল বলে উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে। সেইসময় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের উস্কানিমূলক বক্তৃতা দেওয়ার যে অভিযোগ উঠেছিল তার কোনও উল্লেখ নেই রিপোর্টে। ইন্টারনেটে জাল ভিডিও আপলোড করে দাঙ্গায় মদত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল বিজেপি বিধায়ক সঙ্গীত সোমের বিরুদ্ধে। বিধায়কের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের তদন্ত করেছিল ওই রাজ্যের পুলিশ। পৃথক দু’টি মামলা রুজু হয়েছিল তাঁর বিরুদ্ধে। বেশ কিছুদিন জেলে থাকার পর এখন তিনি জামিনে মুক্ত। রিপোর্টে তাঁর বিষয়ে বলা হয়েছে, “বিধায়ক সঙ্গীত সোমের বিরুদ্ধে সরকার আর কোনও ব্যবস্থা নেয়নি।” জেলাশাসক কৌশল রাজ শর্মার ভূমিকা নিয়ে বড় প্রশ্ন চিহ্ন রয়েছে রিপোর্টে। ২০১৩ সালের অগস্ট মাসে রাজনৈতিক ব্যক্তি কাদির রানা, নুর সালিম রানা, রশিদ সিদ্দিকি, এহশান কুরেশি সহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে দাঙ্গায় মদত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। রবিবারের পেশ করা রিপোর্ট অনুসারে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে আদালত।

মুজফরনগরে ২০১৩ সালে ঘটে যাওয়া দাঙ্গায় প্রাণ হারিয়েছিলেন ৬০জনেরও বেশি মানুষ। প্রায় ৪০হাজার লোক গৃহহীন হয়েছিলেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ওই বছর সেপ্টেম্বরে কমিশন গঠন করে উত্তর প্রদেশ রাজ্য সরকার। দু’বছর পর ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে ওই রাজ্যের রাজ্যপালের কাছে রিপোর্ট পেশ করে এলাহাবাদ উচ্চ আদালতের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি বিষ্ণু সহায়ের কমিশন। রবিবার উত্তর প্রদেশের বিধানসভায় পেশ করা হয় ওই রিপোর্ট।

---