ইসলামিক রাষ্ট্রের তকমা ছাড়তে চাইছে বাংলাদেশ

0
43

দেশের সংখ্যালঘু মানুষদের নিরাপত্তার স্বার্থে ইসলামিক রাষ্ট্রের তকমা ছাড়তে চাইছে বাংলাদেশ। দীর্ঘদিন ধরেই ওই দেশের হিন্দু, খ্রিষ্টান এমনকি মুসলিম শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরাও ইসলামি মৌলবাদের শিকার হচ্ছিলেন। বাংলাদেশে গত কয়েক বছরে ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে সংখ্যালঘুদের উপর আক্রমণের মাত্রা।

ইসলামিক রাষ্ট্রের তকমা মুছে ফেলার জন্য মামলা রুজু হয়েছে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালতে। যদিও মামলাটি এখনও বিচারাধীন। ১৯৮৮ সাল থেকে ইসলাম বাংলাদেশের সরকারি ধর্ম। একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে একটি ধর্মকে সরকারিভাবে স্বীকৃতি দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেক সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের নেতা। বাংলাদেশকে ইসলামিক রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করার সিদ্ধান্ত অনৈতিক ছিল বলে দাবি সংখ্যালঘুদের। বর্তমানে বাংলাদেশের শতকরা প্রায় ৯০ভাগ মানুষ মুসলিম। আট শতাংশ হিন্দু এবং বাকি দুই শতাংশ অন্যান্য সম্প্রদায়ের মানুষ বাস করেন বাংলাদেশে।

ফেব্রুয়ারি মাসের মাঝামাঝি বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলায় এক পুরোহিতকে গলা কেটে হত্যা করে দুষ্কৃতীরা। একইসঙ্গে ওই ঘটনায় জখম হয়েছিলেন দু’জন হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ। গত কয়েক বছরে বিশিষ্ট কিছু সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ব্লগার খুন হয়েছেন পদ্মা নদীর দেশে। ইসলামিক মৌলবাদী গোষ্ঠী জামাতুল মুজাহিদ্দিন বাংলাদেশ এবং আনসুরাল্লা বাংলা টিম গতবছর সাতবার আক্রমণ করেছেন অমুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের উপর। এদের মধ্যে অনেকে ভিন দেশীও আছেন।

---